ইসির ইভিএম নিয়ে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বৈঠক

জনতার খবর / ৫১ বার দেখা হয়েছে
প্রকাশকাল : বুধবার, ২৫ মে, ২০২২
ছবিঃ সংগৃহীত।

আগামী দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করার বিষয়ে রাজনৈতিক দল ও বিভিন্ন মহলের নানান মত রয়েছে। তাই এই মেশিনটির কারিগরি বিষয় নিয়ে মতবিনিময় করতে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছে কাজী হাবিবুল আউয়াল কমিশন।

বুধবার (২৫ মে) সকাল ১০ টায় আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে বৈঠকটি শুরু হয়। সভায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল, নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহসান হাবিব খান (অব.), বেগম রাশেদা সুলতানা, মো. আলমগীর, মো. আনিছুর রহমান, শিক্ষাবিদ ও গবেষক ড. জাফর ইকবাল,  ব্রাক ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক এম কায়কোবাদ ও  বুয়েটের মতিন সাদ আবদুল্লাহ, বুয়েটের ড. মো. মাহফুজুল ইসলাম, এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের অলোক কুমার সাহা, বিএমটিএফ-এর পরিচালক মেজর জেনারেল সুলতানুজ্জামান মো. সালেহ উদ্দিন, সেনা কল্যাণ সংস্থার চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম, ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ, জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক একেএম হুমায়ূন কবীর, আইডিয়া-২ প্রকল্পের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবুল কাশেম মো. ফজলুল কাদেরসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত রয়েছেন বলে জানা গেছে।

জানা যায়, বৈঠকে ইভিএমের কারিগরি বিষয়ে দক্ষতা রয়েছে এমন বিশেজ্ঞদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তারা বিষয়গুলো উত্থাপন করবেন, আলোচনা করবেন, মতামত দেবেন। পর্যায়ক্রমে সংশ্লিষ্ট আরও অনেকের সঙ্গে বসা হবে। কমিশন (ইভিএমের কারিগরি) বিষয়টা বুঝতে চাচ্ছেন। মতবিনিময় সভায়, বিশেষজ্ঞরা ইভিএমের কারিগরি দিক দেখবেন, মতামত রাখবেন। আমাদের আইটি বিশেষজ্ঞরাও থাকবে, এ বিষয়ে মত দেবেন। ইভিএমের উপর কমিশন তাদের মতামত নেবেন।

জানা যায়, বৈঠকে ইভিএম প্রদর্শনীর পাশাপাশি সার্বিক কারিগরি দিক তুলে ধরা হবে। এরপর যন্ত্রটি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের মতামত নেবে কমিশন। নতুন কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার এক মাসের মাথায় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচননে সামনে রেখে বিভিন্ন অংশীজনদের সঙ্গে সংলাপ শুরু করে। ২৩ মার্চ থেকে ১৮ এপ্রিল চার ধাপের সংলাপ হয়েছে। সংলাপে ইভিএমের পক্ষে বিপক্ষে বেশকিছু মতামত আসে।

ইভিএমের বিষয়ে মঙ্গলবার সিইসি কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, আমরা চার-পাঁচটা মিটিং করেছি, এখনো পুরোপুরি আস্থাভাজন হতে পারিনি। আরও মিটিং হবে। সেখানে পর্যালোচনা করব।  তিনি আরও বলেন, আমরা বলেছি, ইভিএম নিয়ে সবার আস্থা অর্জন করতে চাই। কালকেও কারিগরি মিটিং হবে। আরও কয়েকটি বৈঠকে সকলের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে ইভিএম নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এর আগে গত ১০ মে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, যেটি স্পষ্ট করে বলতে চাচ্ছি, অনেকে ইচ্ছা পোষণ করতে পারেন, সদিচ্ছা ব্যক্ত করতে পারেন। ইভিএমে ভোট দেওয়ার বিষয়ে আমরা এখনো কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি। ইতিমধ্যে আমরা নিজেরা অনেকগুলো সভা করেছি, আগামীতে আরো সভা হবে। তারপর সিদ্ধান্ত হবে আমাদের। ভোট স্বাধীনভাবে আমরা পরিচালনা করবো যতদূর সম্ভব। এটা আমাদের এখতিয়ারভুক্ত, পদ্ধতিও আমাদের এখতিয়ারভুক্ত।

সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সিদ্ধান্ত আমাদের উপরেই থাকবে। মতামত আমরা বিবেচনায় নিতে পারি। আপনিও মতামত দিতে পারেন, রাস্তায় কেউ মতামত দিতে পারেন, রাজনৈতিক দলগুলো মতামত দিতে পারবেন। আল্টিমেটলি আমরা পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবো ভোট কোন পদ্ধতি ও কেমন হবে। সেটি আমাদের বিষয়। এই বিষয়ে আমরা স্বাধীন।

সিইসি আরও বলেন, সব আসনে ইভিএমে ভোট করার মত এখন আমাদের সামর্থ নেই। ৩০০ আসনের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত আমরা এখনও নেইনি। ভোট ব্যালটে হবে না ইভিএমে, কতটি আসনে ইভিএমে হবে এই বিষয়ে কমিশন এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। এটি পর্যালোচনাধীন রয়েছে।

 

Print Friendly, PDF & Email


এই বিভাগের আরো সংবাদ

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
১,৯৭১,৬০২
সুস্থ
১,৯০৭,২১৯
মৃত্যু
২৯,১৪৫
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
২,২৪১
সুস্থ
১৫২
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট